হিরো আলম আমার মর্যাদা বোঝে নাই : অনন্ত জলিল ছবি-সংগ্রহ

সুপ্রভাত বগুড়া (বিনোদন): ঢালিউডের জনপ্রিয় নায়ক অনন্ত জলিল তার নতুন সিনেমার জন্য চুক্তিবদ্ধ করেছিলেন হিরো আলমকে।

প্রাথমিকভাবে তাকে সম্মানী হিসেবে ৫০ হাজার টাকাও দিয়েছিলেন। কিন্তু হিরো আলমের বিতর্কিত নানা কর্মকাণ্ডে ক্ষুব্দ হয়ে তাকে শেষ পর্যন্ত তার সিনেমা থেকে বাদ দিয়েছেন অনন্ত।

কারণ হিসেবে অনন্ত বলেন, ‘আমি চাচ্ছিলাম, তার পাশে দাঁড়িয়ে তাকে সহযোগিতা করার, যাতে করে তার উপকার হয়। কিন্তু এ ধরনের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যর মানুষের সঙ্গে আমার কাজ করা সম্ভব না।

তাই আমি আর তাকে নিয়ে সিনেমা বানাবো না। পঞ্চাশ হাজার টাকা সাইনিং মানি যেটি দিয়েছি সেটি আমি চাইছি না।

সেটি তাকে আমি দিয়ে দিলাম।’তবে হিরো আলম মনে করছেন এটি তার বিরুদ্ধে একটি ষড়যন্ত্র। তাকে সিনেমা থেকে বাদ দেওয়ার ঘটনায় নিজের ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে আলম লেখেন, ‘আমি ষড়যন্ত্রের শিকার হলাম’।

কিছুদিন আগে নায়ক জায়েদ খানের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে পড়েন হিরো আলম। তাদের সেই ঝামেলা মেটাতে এগিয়ে আসেন জনপ্রিয় এ অভিনেতা।

তাদের মিটমাটের খবরও জানিয়েছিলেন অনন্ত-জায়েদ-আলমকে সঙ্গে নিয়ে স্যোশাল মিডিয়ায় ছবি দিয়ে।

কিন্তু তার কয়েক দিন যেতে না যেতেই হিরো আলম আবার জায়েদ খানের সমালোচনা করতে শুরু করেন। এতে বিব্রিতকর অবস্থায় পড়েন অনন্ত জলিল।

তিনি বলেন, ‘কিছুদিন আগে আমি নিজ উদ্যোগে জায়েদ খানের সঙ্গে হিরো আলমকে মিল করিয়ে দিয়েছিলাম। প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁওয়ে তাদেরকে নিয়ে একসঙ্গে লাঞ্চ করেছিলাম।

মীমাংসা করে দেওয়ার পরেও একই বিষয় নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় হিরো আলম মন্তব্য করছেন যা মোটেও কাম্য নয়।’অনন্ত বলেন, ‘আমার এত ব্যস্ততার মাঝেও আমি তাকে পাশে বসিয়েছিলাম,

সে আমার মর্যাদা বোঝে নাই। আমার মর্যাদা যেহেতু বোঝে নাই তাই আমি চাই না ভবিষ্যতে তার দ্বারা আমার মর্যাদা ক্ষুন্ন হোক।’

সম্প্রতি হিরো আলমের কিছু অশ্লীল ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে অনেকে অনন্তকে এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে বিব্রতকর অবস্থায় পড়েন জলিল।

তিনি বলেন, গুণীজনরা হিরো আলমকে নিয়ে সিনেমা না বানানোর জন্য আপত্তি জানাচ্ছেন। রিসেন্টলি তার কিছু অশ্লীল ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে। তার এসব বিতর্কিত বিষয়ের জন্য সবসময় আমি বিব্রত হচ্ছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here