ঈদ জামাতের জন্য প্রস্তুত দেশের ৩ লাখ মসজিদ। ছবি-সংগ্রহ

সুপ্রভাত বগুড়া (জাতীয়): ঈদ জামাতের জন্য প্রস্তুত দেশের ৩ লাখ মসজিদ। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে জাতীয় ঈদগাহে দেশের প্রধান জামাত না হওয়ায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে সকাল ৭টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত হবে ৫টি ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে, মসজিদে নামাজ আদায়ের ক্ষেত্রেও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে বলেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। এক মাসের সিয়াম সাধনার পর এসেছে ঈদ। তবে বিশ্বব্যাপী করোনা সংক্রমনের কারণে এবার দিনটি উদযাপন হচ্ছে ভিন্ন বাস্তবতায়। সে কারণেই এবার ঈদগাহে থাকছে না নামাজ আদায়ের চিরায়ত দৃশ্য। এবার ঈদের জামাত হবে সারা দেশের ৩ লাখ মসজিদে।

প্রধান জামাত হবে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে। সকাল ৭টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত এখানে হবে ৫টি ঈদ জামাত। এছাড়া জামাতের জন্য প্রস্তুত রাজধানীর পাড়া-মহল্লার সব মসজিদ।

চট্টগ্রামে প্রধান জামাত সকাল ৮টায় জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদে। রাজশাহী নগরীর ৪১৭ মসজিদে জামাত হবে সরকারি নির্দেশনা মেনে। আর বরিশাল মহানগরীতে প্রস্তুত ৪৫৫টি মসজিদ। বগুড়ায় সকাল ৭টা থেকে ৯টা পর্যন্ত মসজিদে নামাজ আদায় করতে পারবেন মুসল্লিরা। রংপুর সিটি করপোরেশনসহ জেলার ৮ উপজেলায় ৬ হাজার মসজিদে হবে ঈদের জামাত।

প্রতিবছর কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায় দেশের সবচেয়ে বড় ঈদ জামাত হলেও করোনার কারণে এবার তা হচ্ছে না। বাগেরহাটের ঐতিহাসিক ষাটগম্বুজ মসজিদে স্বাস্থ্যবিধি মেনে হবে ঈদের প্রধান জামাত। জামাতের পর জনসমাগম বন্ধে সতর্ক অবস্থানে আছে পুলিশ।

এবার নামাজ আদায়ের ক্ষেত্রে বেশ কিছু স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে বলা হয়েছে মুসল্লিদের। এর মধ্যে রয়েছে মসজিদ জীবাণুমুক্ত করা, কার্পেট না পাতা, বাড়ি থেকে ওজু করে জায়নামাজ নিয়ে মসজিদে আসার নির্দেশনা। পাশাপাশি মসজিদে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা ও ঢোকা বেরুনোর জন্য রাখতে হবে আলাদা গেট। নামাজের কাতারে নিশ্চিত করতে হবে সামাজিক দূরত্ব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here