ঝিনাইদহে ত্রাণের দাবিতে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ। ছবি-রাসেল আহম্মেদ

সুপ্রভাত বগুড়া (রাসেল আহাম্মেদ, ঝিনাইদহ): ঝিনাইদহে ত্রাণের দাবিতে এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে ঝিনুকমালা আবাসন প্রকল্পের বাসিন্দারা। তাদের দাবি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কে এম নজরুল ইসলাম তাদের কোন খোঁজ খবর রাখেন না।

খেয়ে না খেয়ে দিন কাটাচ্ছেন ওই আবাসনের হতহদরিদ্র এই মানুষগুলো। এ নিয়ে মঙ্গলবার সকালে তারা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে যান। নির্বাহী অফিসারের বক্তব্যে তারা সন্তুষ্ট হতে না পেরে সেখান থেকে ফিরে শহরের পায়রা চত্বর ও পরে ঝিনুকমালা আবাসন প্রকল্পের সামনে ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া মসহাসড়ক অবএরাধ করে বিক্ষোভ করে।

প্রায় ২ ঘন্টা অবরোধ করে রাখার পর খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন এবং তাদের মধ্যে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পাগলাকানাই ইউনিয়ন পরিষদের অধীনে ঝিনুকমালা আবাসন প্রকল্প।

এই আবাসনে বসবাস করেন ২’শ ৩০ টি পরিবার। তাদের ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সদর উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি কে এম নজরুল ইসলাম । তিনি তাদের আবাসনে কোন দিন যান না। এমনকি করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও চেয়ারম্যান আবাসনে বসবাসকারী হতদরিদ্র পরিবারগুলোর খোঁজ খবর নেন না।

চেয়ারম্যান তাদের কাছ থেকে একাধিকবার ভোটার আইডি কার্ড নিয়েছেন কিন্তু পরে আর দেখা করেনি। অবশেষে আবাসনে বসবাসকারী নারী-পুরুষ সবাই মঙ্গলবার সকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে গিয়ে ত্রাণের দাবি জানান। সেখানে গিয়েও তারা খুশি হতে পারেননি।

পরে শহরের মাঝে পায়রা চত্বরে গিয়ে বিক্ষোভ করেন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আবুল বাশার ও সদর থানার ওসি মিজানুর রহমানের আশ্বাসে তারা সেখান থেকে ফিরে গিয়ে ঝিনুকমালা আবাসন প্রকল্পের সামনে সড়কের উপর বসে বিক্ষোভ করতে শুরু করেন।

সে সময় সড়কের দু’ধারে যানবাহন আটকে পড়ে। খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন।এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ বদরুদ্দোজা শুভ বলেন, পাগলাকানাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অভিযোগ আমি শুনেছি।

আমার সমন্বয় করে নিন্ম আয়ের মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করছি। তাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পাগলাকানাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কে এম নজরুল ইসলাম বলেন, আমি তাদের তালিকা সংগ্রহ করেছি।

কয়েকদিনের মধ্যেই ত্রাণ সামগ্রী দেওয়া হবে। এর মাঝেই একটি মহল ষড়যন্ত্র করে আমার বিরুদ্ধে দাড় করিয়েছে।ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ বলেন, ঝিনাইদহে ত্রাণসামগ্রীর কোন ঘাটতি নেই।

প্রতিদিন নিন্ম আয়ের লোকজনের মধ্যে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। মঙ্গলবার ত্রাণের দাবিতে পাগলাকানাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলামের বিরুদ্ধে ঝিনুকমালা আবাসন প্রকল্পের বাসিন্দারা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করার খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে যায়।

সেখানে উপস্থিত আবাসন প্রকল্পের বাসিন্দাদের মধ্যে তাৎক্ষনিকভাবে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়। এর পর থেকে তারা নিয়মিতভাবে ত্রাণসামগ্রী পাবেন বলে আশ্বস্থ করা হলে তারা সড়ক অবরোধ প্রত্যাহার করে নেন। তিনি আবাসনের বাসিন্দাদের অভিযোগ অনুযায়ী ব্যবস্থা নিবেন বলেন জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here