পূর্ব শত্রুতার জেরে নওগাঁয় সন্ত্রাসী হামলায় আহত-০২! ছবি-অন্তর আহম্মেদ

পূর্ব শত্রুতার জের !

সুপ্রভাত বগুড়া (অন্তর আহম্মেদ,নওগাঁ প্রতিনিধি): নওগাঁয় সন্ত্রাসী হামলায় দু’জন গুরুত্বর আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত রবিবার সন্ধ্যায় নওগাঁ সদরের চন্ডিপুর (উত্তর পাড়া) গ্রামে। স্থানীয়রা জানায়, ওই গ্রামের মৃত তোফাজ্জল হোসেন সরদারের ছেলে ইদ্রিস আলী (৬৫) এর সঙ্গে একই গ্রামের প্রতিবেশি মৃত ইবার আলীর ছেলে আব্দুল হাকিম (৪৫) এর দীর্ঘদিন ধরে একখন্ড বসতবাড়ির জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।

এরই জের ধরে ঘটনার দিন ইদ্রিস আলী ওই জমিতে পাকা বাড়ি নির্মাণ করতে গেলে হাকিম ও তার লোক জন বাধা দেয়।এতে করে দু’পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডা বাধে। এরই এক পর্যায়ে হাকিম ও তার লোকজন ঘটনার দিন সন্ধ্যায় ইদ্রিস আলীর বাড়িতে হামলা চালায়।

এ সময় ইদ্রিস আলী ও তার ছেলেরা বাড়িতে না থাকায় হাকিমের স্ত্রী শাহিনা (৪০)ও অন্যান্যদের সহযোগিতায় ইদ্রিস আলীর নাতনি শ্রাবনী আক্তার (১৭) কে বাড়ির ভিতর থেকে জোর করে বাহিরে এনে তার বাড়ির সামনে নিয়ে গিয়ে ইট দিয়ে তার মাথায় আঘাত করে গুরুত্বর আহত করে।

শ্রাবণীর ডাক চিৎকারে তার চাচা হাফিজুর রহমান শিপলু এগিয়ে আসলে প্রতিপক্ষ হাকিমের ছেলে ও তার লোকজনেরা তাকেও আক্রমন করে এবং এলোপাথারী মারপিট করে তার ডানহাত ভেঙ্গে দেয়। পরে আহতদের ইদ্রিস আলীর পরিবারের লোকজন উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক শ্রাবণীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রের্ফাড করে এবং শিপলুকে চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয় । এ ঘটনায় হাফিজুর রহমান শিপলু বাদি হয়ে গত ০৫ এপ্রিল নওগাঁ সদর মডেল থানায় ০৬ জনকে আসামী করে একটি অভিযোগ করেছেন।

থানায় দাখিলকৃত অভিযোগ ও আহতদের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ইদ্রিস আলী তার সম্পতিতে পাকা ইটের বাড়ি করতে গেলে প্রতিপক্ষ হাকিম মোটা অংকের চাঁদা দাবী করে। ইদ্রিস আলী চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে হাকিম ও তার লোকজনেরা বাড়িতে চড়াও হয়ে শ্রাবণী ও তার চাচা শিপলুকে মারপিট করে আহত করে। ভিকটিম শ্রাবণী বলে, প্রতিপক্ষরা তাকে অন্যায় ভাবে মারপিট করে যথম করে।

সে বগুড়া শহীদ জিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি থেকে চিকিৎসা নেয়। বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থা ভাল নয়। সে এই বর্বরতা কান্ডের জন্য সুবিচারের দাবী করে। অভিযোগকারী শিপলু ও তার পরিবারের সদস্যরা জানান, প্রতিপক্ষরা প্রভাবশালী হওয়ায় বর্তমানে তারা নিরাপত্তাহীনতায় জীবন যাপন করছেন।

এ ঘটনায় প্রতিপক্ষ আব্দুল হাকিমের সাথে সেল ফোনে কথা বললে সে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে তবে তার বিরুদ্ধে আনিত চাঁদাবাজীর অভিযোগ অস্বীকার করেন। এ ব্যাপারে নওগাঁ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সোহরাওয়ার্দী হোসেন বলেন, এ ঘটনায় লিখিত একটি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে বলে তিনি জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here