BJUF এর কেন্দ্রীয় ফোরামের প্রচার সম্পাদক মোঃ আলমগীর এক বিবৃতিতে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবী জানান। ছবি-আলমগীর হোসেন


সুপ্রভাত বগুড়া (আলমগীর ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি): BJUF এর কেন্দ্রীয় ফোরামের প্রচার সম্পাদক মোঃ আলমগীর এক বিবৃতিতে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবী জানান। জমি সংক্রান্ত বিষয়ে ঠাকুরগাঁওয়ে আদালতের কাজ সেরে বাড়ী ফেরার পথে শহরের বিসিক মোড় এলাকা থেকে ফিল্মী স্টাইলে আব্দুল কাদের জিলানী নামে এক সাংবাদিককে অপহরণ করে নির্জন এলাকায় নিয়ে গিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছে একদল সন্ত্রাসী বাহিনী।

বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) দুপুর ২টার দিকে তাকে অপহরণ করে কিশোর অপরাধ গ্যাংয়ের প্রধান তুহিন হাসান তনু‘র নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী। পরে তারা সাংবাদিক জিলানীকে শহরের গোবিন্দনগর ফার্মের নির্জন এলাকায় নিয়ে গিয়ে বেধড়ক পেটায়। তার আর্তচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে গেলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বর্তমানে সন্ত্রাসী হামলায় আহত সাংবাদিক জিলানী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। আব্দুল কাদের জিলানী দৈনিক আমার সংবাদ পত্রিকা ও এসটিভি বাংলা চ্যানেলে কর্মরত আছেন।

সাংবাদিক জিলানীকে অপহরণসহ তার উপর সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন বাংলাদেশ সাংবাদিক ঐক্য  ফোরাম কেন্দীয় সাংসদ( BJUF) জানানো হয় যে,  দ্রুত সন্ত্রাসীসের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা না হলে কঠোর কর্মসুচি দেওয়া হবে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সাংবাদিক জিলানী বলেন, আদালতে জমি সংক্রান্ত মামলার হাজিরা শেষে বাড়ী ফেরার পথে প্রতিপক্ষের লোকজন ভাড়াটে সন্ত্রাসী দিয়ে আমার উপর হামলা চালায়। সন্ত্রাসী তনু ও তার দলবল (৬-৭জন) আমাকে বিসিক মোড় এলাকা থেকে টেনে-হেচরে গোবিন্দনগর ফার্মের নির্জন এলাকায় নিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর জখম করে।

এসময় তারা আমাকে বলে, ‘ব্যাটা জমি নিয়ে আর বাড়াবাড়ি করবি, আর সাথে চলতে থাকে কিল-ঘুসি লাথি দেওয়াসহ ইট, বাঁশ ও লাঠি দিয়ে পেটানো এবং বলে এবার হালকা-পাতলা দিলাম এরপর গলা কেটে ফেলে রাখবো’। আমরা মাফিয়া বাহিনী-টাকার বিনিময়ে আমরা সব করতে পারি।

এছাড়াও তারা এসময় আমার গলায় ছুরি ঠেকিয়ে বলে আমরা ভিডিও করতেছি, তুই বল আমি নেশা করায় আমাকে তারা মারধর করেছে। সন্ত্রাসী তনু আমাকে প্রাণ নাশে হুমকি দিয়ে বলে, এ বিষয়ে কোথাও অভিযোগ দিলে তোর খবর আছে। শহরের ছেলেদের সাথে লাগবি না।

এ ব্যাপারে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ তানভিরুল ইসলাম জানান, সাংবাদিককে মারধরের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। এছাড়াও তনু নামীয় সন্ত্রাসীকে ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে। সন্ত্রাসী যেই হোক কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছিলো। উল্লেখ্য, তুহিন হাসান তনুর বাসা শহরের হঠাৎবস্তিতে(জেলা শিল্পকলা একাডেমির সামনে)।সে শহরের কূখ্যাত পকেটমার আরমান এর ছেলে। তার নামে এলাকায় ব্যাপক অপরাধমুলক কর্মকান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here